পেরুতে সরকারবিরোধী বিক্ষোভে হাজারো মানুষ, ভবনে আগুন

পেরুর দক্ষিণাঞ্চলে সরকারবিরোধী বিক্ষোভে কয়েক ডজন লোকের মৃত্যুর ঘটনায় ক্ষুব্ধ কয়েক হাজার মানুষ রাজধানী লিমায় বিক্ষোভ দেখিয়ে প্রেসিডেন্ট দিনা বলুয়ার্তের পদত্যাগ, আগাম নির্বাচন এবং সংবিধান পরিবর্তনের দাবি জানিয়েছে। সেই সঙ্গে শহরটির ঐতিহাসিক সান মার্টিন প্লাজার ভবনে আগুন লাগারও ঘটনা ঘটেছে। খবর রয়টার্স ও আল জাজিরার।

peru 3ছবি: সংগৃহীত

advertisement

javascript:false

বৃহস্পতিবারের এ বিক্ষোভে সাড়ে তিন হাজার মানুষ অংশ নিয়েছে বলে সংবাদমাধ্যমে দেশটির পুলিশ জানিয়েছে। তবে এই সংখ্যা পুলিশের অনুমানের দ্বিগুণেরও বেশি। এদিন শহরের অনেক রাস্তাতেই নিরাপত্তা বাহিনীকে লক্ষ্য করে পাথর ছোড়া বিক্ষোভকারীদের মোকাবেলায় অস্ত্রধারী দাঙ্গা পুলিশ দেখা গেছে।

শহরটির কেন্দ্রে সান মার্টিন প্লাজার ভবনে আগুন লাগার সময় সেটি খালি ছিল। কীভাবে আগুন লেগেছে, তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি স্থানীয় রেডিওকে বলেছেন ফায়ার সার্ভিসের এক কমান্ডার। কানাডাভিত্তিক খনি কোম্পানি হাডবে পরে এক বিবৃতিতে জানায়, বিক্ষোভকারীরা পেরুতে তাদের ইউনিটের একটি স্থাপনায় ঢুকে সেটির ক্ষতিসাধন করেছে, গুরুত্বপূর্ণ যন্ত্রপাতি ও যানবাহন পুড়িয়ে দিয়েছে।

advertisement

এদিকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় প্রেসিডেন্ট বলুয়ার্তে ও অন্যান্য মন্ত্রীদের সঙ্গে নিয়ে প্রধানমন্ত্রী আলবের্তো ওতারোলা বলেন, এটা বিক্ষোভ হতে পারে না, যা চলছে তা আইনের শাসন নস্যাতে উদ্দেশ্যমূলক নাশকতা।

সামজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারী অনেকেই বলছেন, লিমার ওই ভবনে আগুন ধরেছে এক পুলিশ কর্মকর্তার ছোড়া কাঁদুনে গ্যাসের গ্রেনেড থেকে। তবে পেরুর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এই ভাষ্য খারিজ করে দিয়েছেন।

Read More:_পেরুতে সরকারবিরোধী বিক্ষোভে হাজারো মানুষ, ভবনে আগুন

গত মাস থেকে পেরুতে খণ্ড খণ্ড কখনো টানা কয়েকদিন যেসব সহিংস বিক্ষোভ হয়েছে, তেমনটা দক্ষিণ আমেরিকার দেশটিতে দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে দেখা যায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *